Sumit Ranjan Saha

Sumit Ranjan Saha

” সুখে আছে কেউ “
সুমিত রঞ্জন সাহা

সুখে আছে কেউ –
জেনেও ভালোলাগে।
নিশ্চয়ই আছে তৃপ্তিতেও ?

সন্ধ্যার আকাশে চাঁদ আর সন্ধ্যা তারাকে কাছাকাছি দেখলে
তাকে খুব মনে পড়ে।
চাঁদ আর তারার এই যুগলবন্দি – তার খুব প্রিয়।

উচ্চাশার জন্য কতকিছুই করে মানুষ,
স্বার্থান্বেষীরা কি বোঝে
ভালোবাসার মর্ম?
সফলতার নকশা বোনে কেউ –
নকশি কাঁথায়।
ম্যাকবেথের মত তার হাতও রঞ্জিত –
কারো হৃদয়-বিদীর্ন রক্তে।
এক সমুদ্র জলে ধুলেও কি উঠবে
শুকনো সেই রক্তের দাগ?

তবু আজও মনে পড়ে –
ফেলে আসা দিন।
আজও নদী তীরে একলা বসলে মনে হয় যেন –
পাশে আছে সে, হাতটি ধরে।

জীবনে প্রতিষ্ঠা – অনেককেই আচ্ছন্ন করে রাখে গরিমায়।
প্রাচুর্য,স্বাচ্ছন্দ, সফলতা –
বুঝি ভুলিয়ে দেয় অনেক কথা?
অতীতকে মনে রাখতে চায় ক’জন?

নির্জনে পাতার মর্মরধ্বনি-
সে যেন তারই ফিসফিসানি।
মৃদু বাতাস এসে
এলোমেলো করে দিয়ে যায় চুল,
মনে হয় যেন তার আদর।

জীবনকে পেয়েছে কেউ –
চেয়েছিলো যেভাবে।
সাজিয়ে নিয়েছেও নিজের জগৎ –
মনের মতো করে।
জানি সুখে আছে কেউ,
শান্তিতেও আছে নিশ্চয়ই?

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *