Little magazine

তৈমুর খান

শারদীয়া লিটিল ম্যাগাজিন
আশ্বিনের মলাট

শারদোৎসব উপলক্ষে বাঙালির সংস্কৃতি চর্চাও বিভিন্ন মাত্রা পায়। গ্রামবাংলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে প্রকাশিত হয় লিটিল ম্যাগাজিনের শারদীয়া সংখ্যা।আমাদের দপ্তরেও এসে পৌঁছয় তার ঢেউ। এই লিটিল ম্যাগাজিনের পিছনে লুকিয়ে থাকে অনেক নিষ্ঠা, শ্রম ও স্বপ্ন। আসুন আমরা পরিচয় করি সেইসব নির্বাচিত কয়েকটি ম্যাগাজিনের সঙ্গে। আজ প্রথম কিস্তি।

শারদীয়া লিটিল ম্যাগাজিন

সাহিত্য আলপনা

নবমবর্ষ দ্বিতীয় সংখ্যা শারদীয়া সংখ্যা(১৪২৯) হিসেবে প্রকাশিত হয়েছে ষান্মাসিক ‘সাহিত্য আলপনা’। এই সময়ের উল্লেখযোগ্য কবি-লেখকরা প্রায় সকলেই উপস্থিত। কবিতা বিষয়ক প্রবন্ধ লিখেছেন: দিশারী মুখোপাধ্যায়, পিনাকীরঞ্জন সামন্ত, মণিশঙ্কর, দুর্গাদাস মিদ্যা, গৌতম কুমার গুপ্ত,ড. সমীরণ সরকার, বিপ্লব চক্রবর্তী, রজতকান্তি সিংহচৌধুরী, কাকলি মান্না, জয়ন্ত দত্ত, অলোক বন্দ্যোপাধ্যায় প্রমুখ। লোকসাহিত্য ও অন্যান্য বিষয় নিয়ে কলম ধরেছেন: ড. সুরঞ্জন মিদ্দে, দিগেন বর্মন, অরূপ শান্তিকারী, ড.আদিত্য মুখোপাধ্যায়, আবু রাইহান, সমীরণ দত্ত প্রমুখ। আত্মজীবনীমূলক গদ্য লিখেছেন: পুষ্পিত মুখোপাধ্যায়, অমিয়কুমার সেনগুপ্ত, সিদ্ধেশ্বর শেঠ, নির্মলকুমার বন্দ্যোপাধ্যায়, পুষ্প সাঁতরা। শতাধিক কবির কবিতা এবং প্রায় কুড়িটি গল্প নিয়ে সংখ্যাটি পূর্ণতা অর্জন করেছে। মার্জিত ও পরিচ্ছন্ন সংখ্যাটি প্রকাশ করতে গিয়ে সম্পাদক দায়বদ্ধতার কথা উল্লেখ করেছেন যা একটা লিটিল ম্যাগাজিন এর পক্ষে মেরুদণ্ড সোজা করার প্রয়াস। যোগাযোগের ঠিকানা: সম্পাদক রাজীব ঘাঁটি,১৬/১৪ট্রাঙ্ক রোড, এ-জোন, দুর্গাপুর-৭১৩২০৪

চলভাষ:৭৯০৮১৮৪৩০০১ , মূল্য-১৫০ টাকা।

শারদীয়া লিটিল ম্যাগাজিন

পৃথিবী

❤️

১৯ বছর ধরে প্রকাশিত হয়ে আসা ‘পৃথিবী’র এই সংখ্যাটি শারদীয়া সংখ্যা(১৪২৯)। বিশেষ ক্রোড়পত্র হিসেবে কাঙাল হরিনাথকে তুলে ধরা হয়েছে। তাঁর জীবনের বিভিন্ন দিক এবং অত্যাচার-শোষণের বিরুদ্ধে বিদ্রোহী হয়ে ওঠার প্রেক্ষিতগুলি আলোকপাত করেছেন: অশোক চট্টোপাধ্যায়, নিশিত ষড়ংঙী, দীপক আঢ্য, জন্মেজয়। হরিনাথ আজও কতখানি প্রাসঙ্গিক এবং বিবেকের জাগরণ ঘটাতে সক্ষম তা লেখাগুলিতে পেলাম। বিখ্যাত ব্যতিক্রমী কয়েকজন কবির কবিতা বেশ নাড়া দিল। বিশেষ করে গোলাম রসুল, শঙ্খশুভ্র পাত্র, মধুমঙ্গল বিশ্বাস, জয়ন্তী চট্টোপাধ্যায়, তুষারকান্তি রায়, অরুণকুমার দত্ত, সত্যজিৎ ঘোষ, সৌরভ মাহান্তী, দুলালেন্দু সরকার, নজর উল ইসলাম প্রমুখ। প্রায় আটটি ছোটগল্প এই সংখ্যায় ঠাঁই পেয়েছে।লিখেছেম: তৃষ্ণা বসাক, প্রবীর চক্রবর্তী, গৌতম বিশ্বাস, অভিরূপ মিত্র প্রমুখ। সবগুলিই বেশ সুখপাঠ্য। ছিমছাম পত্রিকাটি বিশেষভাবে আকৃষ্ট করে। যোগাযোগের ঠিকানা: লিলি সরকার, ২৭ /এ রবীন্দ্র রোড, ন’পাড়া শিববাড়ি, বারাসাত, কলকাতা-৭০০১২৫, মূল্য ৬০ টাকা।

শারদীয়া লিটিল ম্যাগাজিন

আলোর পাখি

❤️

২৫ বছর থেকে প্রকাশিত হয়ে আসা ‘আলোর পাখি’র বর্তমান শারদীয়া (১৪২৯) সংখ্যাটিও সমর্যাদায় প্রকাশিত হয়েছে। বিপুল চক্রবর্তী তাঁর কবিতায় লিখেছেন :”প্রভুর হুকুমে চলে বিশ্ব জুড়ে বশংবদ, দাস—/গুগুল সর্বত্র প্রায়-সবজান্তা আশ্চর্য রোবট” তখন মনে পড়ে যায় আমাদের শাসকের কথা। কী যন্ত্রণার মধ্যে দিয়েই না দিনপাত করছি তা অনুভব করতে পারি। সম্পাদকীয়তেও এই উদ্বেগের কথা ব্যক্ত করেছেন। এই সংখ্যায় কবিতা লিখেছেন : ইন্দ্রাণী মুখোপাধ্যায়, দিশারী মুখোপাধ্যায়, সত্যজিৎ সেন প্রমুখ কবিবৃন্দ। সব কবিতাগুলিই অসাধারণ। গল্প লিখেছেন অশোক তাঁতী, দেবাশিস সরকার, নির্মলকুমার বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রবন্ধ-নিবন্ধে আবদুল গাফফার চৌধুরী, বিকাশ এস জয়নাবাদ, রেণুকা মাজী, তপনকুমার রায়, ত্রিপুরা বসু, নীতীশ ভট্টাচার্য। লোককথা থেকে ইতিহাস, জীবন থেকে স্বপ্নকথা সবই প্রবন্ধের বিষয়। বেশকিছু ভ্রমণ কাহিনিও সংখ্যাটির মূল্যবান সংযোজন।যোগাযোগ:তপনকুমার রায়, বি-১৫,সুকান্ত পল্লি, দুর্গাপুর-৭১৩২০১,পশ্চিম বর্ধমান, চলভাষ-৯৮৩২১১১১৫৮,মূল্য ৪০ টাকা।

শারদীয়া লিটিল ম্যাগাজিন

রোদ্দুর

❤️

২২ বছর ধরে প্রকাশিত ষান্মাসিক পত্রিকা ‘রোদ্দুর'(১৪২৯) এর শারদ সংখ্যাটি এবার অসাধারণ প্রচ্ছদে সেজে উঠেছে। গল্প,কবিতা, প্রবন্ধ ও ছড়া নিয়ে সবরকম পাঠকের জন্য পত্রিকাটি একটি উন্মুক্ত প্ল্যাটফর্ম। ছোট গল্প লিখেছেন: ড.সুমিত্রা খাঁ, মিহির পাল, দোলগোবিন্দ চ্যাটার্জী এবং অণুগল্প লিখেছেন: অনিমেষ চট্টোপাধ্যায়। বেশ কয়েকটি কথিকায় রসাস্বাদন করিয়েছেন: প্রদীপকুমার পাল, বামাপদ দত্ত। কয়েকটি উল্লেখযোগ্য প্রবন্ধের মধ্যে উল্লেখ করতেই হয়, ষাট দশকের কবি মনুজেশ মিত্রের কবিতা নিয়ে তরুণ কবি অনিমেষ মণ্ডলের একটি মননশীল রচনা: ‘মনুজেশ মিত্রের কবিতা: যেন মহাজাগতিক কোনো নক্ষত্রপুঞ্জ থেকে আলো এসে পড়ে’। বীরভূমের এই কবিকে অনেকেই চেনেন না, কিন্তু কত শক্তিশালী কবি তা অনিমেষ উল্লেখ করেছেন। কৌশিক চন্দ লিখেছেন শ্রীরামকৃষ্ণ স্মৃতিধন্য বিষ্ণুপুরের সর্বমঙ্গলা দেবীর পূজা প্রসঙ্গ যা একটি ঐতিহাসিক নিদর্শন। বাপ্পাদিত্য বন্দ্যোপাধ্যায়ের কবিতার কয়েকটি পঙক্তি হলো: “হতাশার বিষাক্ত ছোবলে/ নীলকন্ঠ হয়ে আছি/ তবু এখনও ঘুমাই/ স্বপ্ন দেখবো বলে।” সেই স্বপ্ন দেখারই মাধ্যম হয়ে উঠেছে এই পত্রিকা। আছে অজস্র কবিতা এবং ছড়াও। যোগাযোগের ঠিকানা: মিহির পাল, রামপুরহাট চালধোয়ানি পাড়া, রামপুরহাট, বীরভূম-৭৩১২২৪, চলভাষ :৯৬৭৯১০০৪৫১, মূল্য ৪০ টাকা।

শারদীয়া লিটিল ম্যাগাজিন

আহেলী

❤️

১২ বছর ধরে প্রকাশিত হয়ে আসা ষান্মাসিক ‘আহেলী'(১৪২৯)এর শারদীয়া সংখ্যাটি যথেষ্টই সমৃদ্ধ একটি সংখ্যা। এই সংখ্যার উল্লেখযোগ্য লেখকদের মধ্যে ক্ষেত্রসমীক্ষক হিসেবে পাই : ড.অনিমেষ চট্টোপাধ্যায়, বলাই ব্যানার্জি, অলক দাঁ, দীনবন্ধু দাস, সৈয়দ মৈনুদ্দিন হোসেনকে এবং প্রাবন্ধিক হিসেবে পাই: ড.আদিত্য মুখোপাধ্যায়,ড.চৈতন্য বিশ্বাস, সৌরেন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায়, শ্রী মদনমোহন চট্টোপাধ্যায় অনিমেষ মণ্ডলকে। ধর্মীয় বিষয় ভাবনা নিয়ে প্রবন্ধ লিখেছেন: শ্রীঅধীরকুমার বন্দ্যোপাধ্যায় ও বীরবাহু সাহু। এছাড়া চিকিৎসা, খেলাধুলা, ভ্রমণ প্রভৃতি বিষয় নিয়েও অনেক বিবরণধর্মী লেখা প্রকাশিত হয়েছে। উল্লেখযোগ্য গল্পকাররা হলেন: নলিনী বেরা, প্রিয়াঞ্জলি দেবনাথ, অর্পিতা রায় হালদার, আব্দুস সালাম এবং ভৌতিক গল্প লিখেছেন সুপ্রকাশ অধিকারী। অণুগল্পে প্রশান্ত নাসিপুরি, তানজিলাল সিদ্দিকি, মতিয়ার রহমান ও দীপিকা মণ্ডল। প্রায় পঞ্চাশ এর অধিক কবিতা লিখেছেন বিশিষ্ট কবিগণ। অরুণকুমার চক্রবর্তী, তপন গোস্বামী, অমিত চক্রবর্তী, নাসিম এ আলম, অতনু বর্মন, মধুমঙ্গল বিশ্বাস,শ্যামশ্রী রায়কর্মকার, দেবগুরু বন্দ্যোপাধ্যায়, অসিকার রহমান, সুপ্রভাত মুখোপাধ্যায়, নাসির ওয়াদেন, সৌমি চক্রবর্তী, বরুণ কর্মকার, গুরুচরণ ব্যানার্জি, অমিতাভ দাস, প্রবীর দাস, কমলেন্দুবিকাশ রায়, মৌসোনা দাস, মল্লিনাথ মুখোপাধ্যায় প্রমুখ বহু কবি। বাবলু কাজি স্বামীজি সম্পর্কে ছড়ায় লিখেছেন: “আজকে বড়ই দরকার গো/ তোমার মতোই লোক/ যে এসে আজ খুলেই দেবে/ বন্ধ সকল চোখ।” আমরা বন্ধ চোখ খুলে যেন তাকাতে শিখি এই পত্রিকাটিও সেই আলোর দিশারি। যোগাযোগের ঠিকানা: গুরুচরণ ব্যানার্জি, তারাপীঠ, বীরভূম-৭৩১২৩৩,চলভাষ : ৯৬৪১৬৪৬৮০৩, মূল্য ১০০ টাকা।

🌿

তৈমুর খান

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *