Month: August 2020

বিভ্রান্ত : শ্রী রাজীব দত্ত

কতখানি বা দেখেছো তুমি  এই রঙ্গ মঞ্চে দেখেছ কি পাখিদের কুহুতান?  কিংবা শুনেছো ঝুমুর গান  অচেনা গঞ্জে।  জীবনে কি দেখেছ পথ হারিয়ে নতুন পথ খোঁজার উল্লাস। পুরনো কে বিদায় জানিয়ে  মেখেছো নতুনের  সুভাষ?  যদি ভেবে থাকো সব জানি তাহলে তুমি পিপীলিকা সহস্ত্র জ্ঞান হয়নিকো পুরন  জানা বাকি জীবনের বিন্দু রেখা।  কতটাই বা ক্ষমতা আছে তোমার …

বিভ্রান্ত : শ্রী রাজীব দত্ত Read More »

বিচ্ছেদ : নিবেদিতা চক্রবর্তী

পিয়া বাগান করতে খুব ভালোবাসে।নানা রকমের গাছ লাগায় সে তার বাগানে । বাগানের প্রতি অনুরাগ তার ছোটবেলা থেকে ।যখন মা বাগানে গাছে জল দিতে আসতেন পিয়াও আসত মায়ের সাথে। গাছ গুলো হাওয়ায় মাথা দুলিয়ে তাকে ছুঁয়ে দিত মাঝে মাঝে।গাছগুলোর সাথে যেন সখ্যতা তৈরি হয়ে যেত ।পিয়া তার বাগানে নানারকমের গাছ লাগিয়েছে ।বাড়ির সামনের গেটের দুইপাশের …

বিচ্ছেদ : নিবেদিতা চক্রবর্তী Read More »

ডর : আবীর মহাপাত্র

             ২০২০ -এই ২০ টা তেই বারবার হইয়ে আসছ্যে বইলছে, মার্চের ২২, সেই যে বইল্ল ঘরে থাইকতে – তারপর একটাদিন ইস্কুলে চাল আলু দিল – দিয়েই শুরু হইয়ে গেল লক ডাউন ৷ ২১ দিন ঘরের চৈকাঠ টাও না পিরালে ভাল বইল্ল ! ঘরে থাকছি, কিন্তু দম টা হুকহুকাই গেলে দুয়ারকে আসছি, তারপরে বারদুই হুলক্যে, দুয়ারগড়ায় এক চক্কর দিয়েই গুরগুরাই ঘর ঢুকছি …

ডর : আবীর মহাপাত্র Read More »

যে ছেলেটিকে কেউ ভালোবাসেনি : ড.মহীতোষ গায়েন

ছেলেটি আমার বন্ধু ছিল,স্নাতকোত্তর ডিগ্রি ছিলসরল ছিল, গ্রামের ছেলে, ছন্নছাড়া,পোড়াকপালেএক হস্টেলে। সবাই আমরা ভালো ছিলাম,নটি ছিলাম,ফালতু ছিলামসিনেমা দেখা আর ভুবনানন্দ গলির ভিতর সুন্দরী সবছলচাতুরী। এখন আমি জীবনপুর,অধ্যাপনা,সংসারেতে,সুখে কাটেকলেজ করি,কবিতা লিখি,প্রেমিক পুরুষ,কিন্তু কাটাইমাঠঘাটে। ছেলেটি এখন স্কুলে পড়ায়,সংসারতে টানছে ঘানিফেরার পথে নীলফ্রকেতে তাকাতে গিয়ে হোঁচট খেয়েস্কুল কামাই। হলোনা প্রেম,হলোনা ঘর,ভীষণ ইচ্ছা,দেখা হলে শুধুইবলে অথৈ জলে আমার বয়স …

যে ছেলেটিকে কেউ ভালোবাসেনি : ড.মহীতোষ গায়েন Read More »

ব্যবসা করতে এসে লেখক : সিদ্ধার্থ সিংহ

যে পরিবারের ছেলেরা কয়েক পুরুষ ধরে স্থানীয় পাদ্রী বা বিদেশের মাটিতে মিশনারির কাজ করে কাটিয়ে দিচ্ছিলেন জীবন, খুব বেশি হলে এক-আধ জন ডাক্তারি করতেন, সেই পরিবারের বাবা-মায়েরা যে ছেলেকে পাদ্রি হিসেবেই দেখতে চাইবেন এটাই স্বাভাবিক। চেয়েছিলেনও তাই। কিন্তু ছেলেই বাধ সাধলেন। পাদ্রি তিনি হবেন না। বাড়িতে এ খবর জানাজানি হওয়ায় সকলেই বেশ মর্মাহত হলেন। কিন্তু …

ব্যবসা করতে এসে লেখক : সিদ্ধার্থ সিংহ Read More »

এক নারীর আত্মসম্মানের গল্প : পর্ব-২ : এঁটো : শম্পা সাহা

কোনরকমে দ্বিরাগমনটা  সারা হল নামেই। ওদের বাপের বাড়ির লোকজন ও বুঝে গেল যে ওদের মধ্যে সব ঠিকঠাক নেই, যেমন আর পাঁচটা মেয়ের থাকে তার নতুন স্বামীর সঙ্গে ,তবু ভদ্রতা বশতঃ কেউ কিছু বলেনি ,শুধু ওর মা একবার জিজ্ঞাসা করেছিল, “কি  রে জামাই ভাল তো?” সুধা ঘাড় নেড়েছিল, হ্যাঁ বা না কিছুই বলেনি ,মৌনতা সম্মতির নামান্তর …

এক নারীর আত্মসম্মানের গল্প : পর্ব-২ : এঁটো : শম্পা সাহা Read More »

স্বপ্ন : অপালা মুখার্জী

‘ টিঙ্কু, উঠে পড় মা ! তোকে বলেছিলাম না,একদিন ভোরবেলায় একটা সুন্দর জায়গায় বেড়াতে নিয়ে যাবো। সেখানে নীল আকাশে পেঁজা তুলোর রাশি,পাহাড়ের গা বেয়ে রঙীন ঝর্না নেমে আসছে।রঙ বেরঙের পাখি আর প্রজাপতি উড়ছে।ওখানে গিয়ে সবুজ মাঠে ছুটোছুটি করে আমরা খেলবো।রোজ তো অফিস চলে যাই – তোর সাথে খেলাই হয়ে ওঠে না !’ ঘুমটা ভেঙে গেলো।চমকে …

স্বপ্ন : অপালা মুখার্জী Read More »

উত্তর দিস্ : মৈত্রেয়ী সিংহরায়

অবিশ্রান্ত বৃষ্টি, হাইরোড ধরে ছুটে চলেছে গাড়ি, বাইরের সবকিছু আবছা…. শুধু পথের দুপাশের গাছগুলো  বৃষ্টির তা থৈ থৈ নৃত্যের সঙ্গে  একমনে সঙ্গত করে চলেছে…. তার যেমন তাল,তেমন ছন্দ, তেমন লয়… ল‍্যাম্পপোস্টের হলুদ আলো  জলের তোড়ে ভেসে যাচ্ছে…. নাছোড় জলকণা কাঁচের জানলায় আছড়ে পড়ছে….. একমনে ডেকে চলেছি তোকে, কখন যে গা ঘেঁষে দাঁড়িয়েছি আঁচলের খুঁটটা নিজের …

উত্তর দিস্ : মৈত্রেয়ী সিংহরায় Read More »

স্বর্ণালীদিনগুলি : হেনা পারভীন

মন পবনে ভাসিয়ে আমায় নিয়ে যায়গো সেথায়,কাটতো আমার ছেলেবেলার সোনালী দিন যেথায়।হাজার রকম খেলায় মেতে কাটিয়ে দিতাম বেলা,নদীর পাড়ে গাছের ছায়ায় বসতো নানান মেলা। বাবার সাথে মেলায় গিয়ে খেতাম কত  খাবার,সব আবদার মেটার পরেও বায়না যেন আবার।হরেক রকম মিষ্টি মিঠাই  খেতাম বাবার সাথেনাগরদোলায় চড়ে শেষে  ফিরতাম কত রাতে। হিজল ফুলের মালা গেঁথে দিতাম পুতুল বিয়ে,হৈ …

স্বর্ণালীদিনগুলি : হেনা পারভীন Read More »

প্রতিফল : নামিরা আহমেদ

জহির আলম এবং রহিমা  :তারা দুজনেই স্বামী স্ত্রী । রহিমা খাতুন গর্ভবর্তী । কিন্তু প্রতিনিয়ত তার  স্বামী তাকে মারধর করে কারণ সে  মাদকাক্ত। রহিমা খাতুনেের একটি মেয়ে জন্ম হয় তবুও তার     জীবনে অশান্তি কারন তার স্বামী তার ওপর প্রতিনিয়ত অত্যাচার করে । একসময়  রহিমা আর সহ্য করতে না পেরে তার সাত মাসের সন্তানকে রেখে …

প্রতিফল : নামিরা আহমেদ Read More »