Month: August 2019

সুমনা // রণেশ রায়

সুমনা  সেদিনের অষ্টাদশী চঞ্চলা  তুমি ছিলে রাতের জ্যোছনা দেখেছি তোমায় নাচের মুদ্রায়  তোমার অঙ্গে কত না বাহার তুমি সেদিন সুরের মূর্ছনা চুল তোমার অমাবস্যার অন্ধকার  মুখ তোমার রাতের পূর্ণিমা তুমি ছিলে তন্বী তনয়া   যখনই চেয়েছি তোমায়  পেয়েছি সেদিন বারংবার। আজ তোমায় পাই না আর  চুল তোমার দুধ সাদা  ভোরের পাহাড়ের তুষার  মুখ তোমার পাথরের কারুকার্য  …

সুমনা // রণেশ রায় Read More »

মাতৃ রূপেণ —– সুমিত মোদক

বুকের মধ্যে বিদ্যুৎ খেলে গেলো ।মুখের দিকে তাকিয়ে । দুটো মুখের মধ্যে কোনো পার্থক্য নেই । সেই চোখ । সেই নাক । সেই ঠোঁট । পার্থক্য রঙের । ফর্সা ও কালো । পোশাকে একজন রাজকীয় । অন্যজন মলিন ।  জ্ঞান হওয়ার পর থেকেই মাকে দেখেনি । কোন সে ছোটবেলায় ওকে রেখে চলে গেছে । অন্য …

মাতৃ রূপেণ —– সুমিত মোদক Read More »

জবাব // শর্মিষ্ঠা গুহ রায়(মজুমদার)

(কখনো কখনো একটি ক্ষণের বর্ণনা দিতে গিয়ে লাখো শব্দও কম পড়ে যায়,আবার কখনো কয়েকটি পংক্তি জীবনের সবকথা তুলে ধরে অতি স্পষ্ট ভাবে চোখের সামনে।’জবাব’ সেইরকমই কয়েকটি পংক্তির সমাহার-যার মাধ্যমে দুটি মানুষের জীবনযুদ্ধের কথা তুলে ধরলাম।)  নামটা কত সুন্দর রেখেছিলেন তমা তাঁর প্রথম সন্তানের-‘টুসি’।সব ভালোই চলছিল।কিন্তু কিছুদিনের মধ্যেই তিনি বুঝতে পারেন যে এই মেয়ে শ্রবণ প্রতিবন্ধী।কানে …

জবাব // শর্মিষ্ঠা গুহ রায়(মজুমদার) Read More »

ঝড় // বন্য মাধব // পর্ব – ২

মানুষ প্রথমে ঘোরের মধ্যে পড়ে। তারপর ঠিক ভুল গুলিয়ে যায়। শেষে সাঁ সাঁ করে ঝড় আসে। বোধবুদ্ধি সব গুবলেট মেরে যায়। একটা ঝড়ের দাপট থামতে না থামতেই আর একটা ঝড়ের বুকে হুমড়ি খেয়ে পড়ে।    টুবলু, পুপলু, মিকিদি আর আমি, এই চারজনের হৈ হল্লায় বাড়ি একেবারে যাকে বলে মাথায় উঠে যেত। একসঙ্গে ঘুমানো, ওঠা, হাতমুখ …

ঝড় // বন্য মাধব // পর্ব – ২ Read More »

প্রতীক্ষা // বিশ্বনাথ পাল

অনেক দিন পরে আবার আলাপ ছেঁদো কথার মাঝে কেজো কথার অভাব। ঢুলু ঢুলু চোখে তাকাই আবার তোমার দিকে সেদিনের সেই স্বপ্ন গুলো আজ যে বড় ফিকে অনেক ভেবে পাই না পার, কলপ তোমার চুলে মাথা ভরা টাক যে আমার  ফেলেছে মুসকিলে অনেক ভেবে কাছে এসে  অনেক খোঁজার পরে বাম গালেতে জরুল আমার চেনায় তোমারে।  ষোড়শীর …

প্রতীক্ষা // বিশ্বনাথ পাল Read More »

হয়ত এমন সময় // সুকান্ত মজুমদার

ম্লান হয়ে আসছে রৌদ্রক্লান্ত দীগন্তের মত তুমির ও দুচোখ, পরিবৃত্ত সব দৃশ্য স্মৃতি স্মারক হয়ে উঠতে উদ্যত, তিতিক্ষার অন্তরে।  বিরাট বিশ্লেষিত অনুরাগ তোমার সৌন্দর্য সৌজন্য নিয়ে নীলাম্বরীর অনুকম্পা আদ্র দাম্ভিক শান্তির তুলো মেঘ উড়েযাচ্ছে।  হয়ত তুচ্ছসার এ আমার মোহের স্বর্ণাভ বিকেল কে ঢাকছো সুপ্রাচীন পিরামিড অন্ধকারে ! একটু আছিলায় উদ্যায়ী সাধেরা উন্মুক্ত শোকের চোখ হয়ত …

হয়ত এমন সময় // সুকান্ত মজুমদার Read More »

চিন্তিত বাবা শিব // পলাশ পুরকাইত।

শরতের ওই নীল আকাশে,  সাদা মেঘের ভেলা।  মন উচাটন উমার এখন,  গোছগাছ-এর পালা।  মেনকার এদিকে ভেবে ভেবে,  দিন কাটে একেলা।  কখন তার আসবে উমা,  জুড়াবে মনের জ্বালা।  ওদিকে শিব বাবাজীর মনটা খারাপ,  চিন্তায় কাটছে সারাবেলা।  কিভাবে কাটবে তাঁর কটা দিন,  যখন থাকবে শুধুই, দুই চেলা।  কৈলাসে আর দেখা যাবে না,  কার্তিক – গণেশের খেলা।  লক্ষ্মী …

চিন্তিত বাবা শিব // পলাশ পুরকাইত। Read More »

মা / / বিশ্বনাথ পাল

মহাবিশ্বে কি এমন আছে তোমার তূল্য? যার ভরসায় ফেলে চলে যাই, সসাগরা পৃথিবীর সব  বৈভব আয় আয় আয় করে সব্বাই।।  তোমার কমনীয় মূর্তির সামনেই বিষাদ সিন্ধুর   উত্তাল তরঙ্গ মুহূর্তে হয়  শান্ত সমাহিত। ঝঞ্ঝাট বিধ্বস্ত মহলায় রচিত হয় শান্তির  আলপনা।  দয়া  মায়া শান্তি স্বস্তি বিদ্যা আরও কত রূপে কত মূখে মুখিয়ে আছে তোমার অনির্বাচনীয় শান্তিসুধা রূপ …

মা / / বিশ্বনাথ পাল Read More »

মা-পাখি —— সুমিত মোদক

পাকা রাস্তার দুধারে খাল । লোভি মানুষ গুলো করে তুলেছে ডোবা । সেখানে আবর্জনা ফেলে একেবারে নরককুন্ড । সমাজটাকেও । কলমি শাক তরতর করে ভরে গেছে । বর্ষার জল পেয়ে । ডাহুক পাখি দুটো তৈরি করে নেয় অস্থায়ী বাসা । ছানা গুলোর জন্য । কলমি পাতা ও ডাটা দিয়ে । # রাস্তা মেরামতির কাজে আসা …

মা-পাখি —— সুমিত মোদক Read More »