Month: February 2019

তবু মনে রেখো // সুব্রত মজুমদার // ১

                                                “রাস্তা ছাড়ো, রাস্তা ছাড়ো ! এমারজেন্সি পেশেণ্ট ।” দুজন ওয়ার্ডবয় একটা স্ট্রেচারে করে এক মূমূর্ষু বৃদ্ধকে নিয়ে গেল। বৃদ্ধের বয়স আশি না নব্বই তা বোঝা যায় না। বার্ধক্যে রুগ্ন ও নূব্জ্য …

তবু মনে রেখো // সুব্রত মজুমদার // ১ Read More »

শেকড়ের স্মৃতি // ছোটবেলা – ৪০ // বন্য মাধব

সেবার বেশ ক’দিন ধরে ভারি বৃষ্টি হচ্ছিল। বেশি বৃষ্টি হলে আমরা গোলঘরে গরুর গাড়ির চাকায় বসে বা ঢেঁকিশালে বসে, দাঁড়িয়ে সমস্বরে চিৎকার করে ছড়া বলতাম, লেবুর পাতা করমচা / যা বৃষ্টি ধরে যা…….। বৃষ্টির শব্দ বাড়লে আমাদের গলার আওয়াজও বাড়তো। কিন্তু এবারের বৃষ্টি যতই বাড়তে লাগলো বড়দের চিন্তাও ততই বাড়তে লাগল। দিনরাত ঝরছে তো ঝরছে। …

শেকড়ের স্মৃতি // ছোটবেলা – ৪০ // বন্য মাধব Read More »

ধরায় আগমন // সুবীর কুমার রায়

তিনটি লাইন ও দু’টি প্ল্যাটফর্ম নিয়ে বেশ বড় ও ব্যস্ত একটি রেলওয়ে স্টেশন। এই সময়টায় অফিস যাত্রীর ভিড়ে এমনিতেই লোক সমাগম ও ব্যস্ততা একটু বেশি থাকে, আজ আবার ট্রেন বেশ বিলম্ব থাকায়, ভিড় যেন উপচে পড়ছে। দীর্ঘদিন ধরেই আপ প্ল্যাটফর্মের এক পাশে সিঁদুর মাখানো একটা পাথর রাখা আছে। পাথর, তাই এটি কোন দেব বা দেবী …

ধরায় আগমন // সুবীর কুমার রায় Read More »

শেকড়ের স্মৃতি // ছোটবেলা – ৩৬ // বন্য মাধব

আসতো দয়াল মানিক পীরের ফকিরও। ঘোড়ার পিঠের দু’পাশে চকরাবকরা কাপড়ের জোড়া লাগানো থলি। ফকিরদের গায়েও ঐ রকম আলখাল্লা। হাতে ইয়া বড় চামর। লম্বা চওড়া, বড় বড় সাদা দাড়ি ফকিরটি গান গাইত আর সঙ্গীটি দয়াল মানিক পীর বলে ধরতাই দিতো চামর দুলিয়ে দুলিয়ে। গৃহস্থরা খুশি হয়ে সাধ্যমতো এটা ওটা সেটা দিতো। কারো কারো তো মানত থাকতো। …

শেকড়ের স্মৃতি // ছোটবেলা – ৩৬ // বন্য মাধব Read More »

শেকড়ের স্মৃতি // ছোটবেলা – ৩৪ // বন্য মাধব

আমাদের পাড়ায়, আমাদের বাড়ির পিছনে তিন ঘর উড়িষ্যার লোক, লোকে বলতো উড়ে, যাদের আমরা পিসি বলতাম, তারা থাকতো। এদের আর্থিক অবস্থা ক্রমশঃ পড়তির দিকে যাচ্ছিল। এক বিধবা পিসির ছেলে রজনীদা। রজনীদা যতবার বিয়ে করে ততবারই বউ চলে যায়। বউ চলে যেত ভোলাদারও। দু’পা গেলেই কলতলার পাশেই ওদের বাড়ি। ওরা ছিল বিহারি, লোকে বলত খোট্টা। সীতাদি, …

শেকড়ের স্মৃতি // ছোটবেলা – ৩৪ // বন্য মাধব Read More »

অণুগল্প

বন্ধুরা,  অনেক ধন্যবাদ আমার লেখাকে আপনাদের ম্যাগাজিনে প্রকাশ করার জন্য ।। আজ একটি গল্প পাঠালাম।। দুইজন বন্ধুর ভালোথাকার গল্প।।প্রকাশিত হলে ভালো লাগবে।। ভালো-বাসা  //  তন্মনা চ্যাটার্জী সন্ধ্যের সময় এই জায়গাটায় এসে না বসলে আজও অমর্ত্য-র দিন সম্পূর্ণ হয়না। পাঞ্জাবীর পকেট থেকে ফোনটা বার করে তন্দ্রার নম্বরটা ডায়াল করে সে, আজ কুড়ি বছর ধরে এই অভ্যেসটা বদলায়নি …

অণুগল্প Read More »

মধুকর এসে বসবে মধু সিঞ্চনে

To Autumn      BY JOHN KEATS কবিতার ভাবানুসারেহে শরত তোমার গান তুমি গাও      — রণেশ রায় ও বন্ধু শরত, তুমি মায়াবী সুন্দরীপ্রকৃতির  মরসুমী বৈচিত্রেঅঙ্গে অঙ্গে ভরা যুবতী রমণী,ফুল ফলে শোভিত তুমি,উদয় কালে তুমি সূর্যের সঙ্গিনী,নিরালায় একান্ত গোপনে দুজনে আলাপে,এ সাঁঝ বেলায় ভাবনা তোমাদেরকেমনে সাজাবে দুহিতাকে ফলে ফুলেলতানো বৃক্ষরাশি লতায় পাতায়সেজে উঠবে তোমার …

মধুকর এসে বসবে মধু সিঞ্চনে Read More »

শেকড়ের স্মৃতি // ছেলেবেলা – ৩৩ // বন্য মাধব

স্যায়না প্রথম সন্তান মারা গেলে মায়ের হাল কী হয় বড় জ্যেঠিমাকে দেখে আমরা সেটা যেমন বেশ বুঝেছিলাম, তেমনি বুঝেছিলাম সরলাদিকে দেখে। বড় মামার প্রথম পক্ষের তিন সন্তানের মধ্যে সরলাদি ছোট এবং একমাত্র মেয়ে। মামারবাড়ির কাছেই, ঊষপাড়াতে দিদির বিয়ে হয়েছিল। জামাইবাবু প্রাইমারি স্কুল শিক্ষক। বড় ছুটিছাটায় সপরিবারে দিদিরা আমাদের বাড়িতে আসতো। মা মরা ভাইঝিকে তার সেজপিসি …

শেকড়ের স্মৃতি // ছেলেবেলা – ৩৩ // বন্য মাধব Read More »

Subham Roy

Subham Roy  //  Class VII  Jamalpur High School  Jamalpur // District East Burdwan  West Bengal   // India  PIN 713408 ছবি : শুভম রায় ছবি : শুভম রায় 

পরিস্থিতি (দ্বিতীয় পর্ব) // লেখা :- মৃণাল চক্রবর্তী

আমাদের বন্ধুত্বটা হয়েছিলো ঠিকই কিন্তু আমি যে আবীর কে ভালোবাসি একথা এখনও আমার বলা হয়ে ওঠেনি, ভয় হতো যদি এটা শোনার পর থেকে আবীর আর আমার সাথে কথা না বলে। আমি একটা জব পেলাম বেসরকারি ব্যাংকে ব্যাংক বন্ধ হতো প্রায় ৫:০০/৬:০০ টা আমি রোজ বাড়ি আসার সময়ে দাঁড়িয়ে থাকতাম ঠিক আবীর যে দোকানে কাজ করে …

পরিস্থিতি (দ্বিতীয় পর্ব) // লেখা :- মৃণাল চক্রবর্তী Read More »