ভাগ্য // ডি কে পাল

ফুলের মত তরতাজা এক
অপাপবিদ্ধ বালক সে;
কপালদোষে হতেই হল
ঠেলা গাড়ির চালক যে!
কুরুচি’তে বাপ গেল তার
নতুন আর এক সংসারে;
নিঃস্ব মাতা ভাই-বোন’দের
খোরাক এখন তার ঘাড়ে।
পড়া-লেখা  খেলা-ধুলা
বন্ধ হল চিরদিন;
রুগ্ন মাতার ওষুধ জোগাড়
করতে যেয়ে অনেক ঋণ।
দিনে দিনে ঋণের টাকা
সুদ বেড়ে তা হয় দ্বিগুণ;
পাওনাদারের ক্রোধ ভয়ানক
যখন তখন হয় কি খুন?
সকাল বিকাল দেয় তাগাদা
বসত জমি চায় নিতে;
মাথা গোঁজার ঠাঁই টুকু–কে
জীবন গেলেও চায় দিতে?
পাওনাদারের দখল ধকল
ভয়াবহ বিকট ত্রাস;
দিতেই হল বসত ভিটা
আগুন করল সকল গ্রাস।
মানব নামের দানব তারা
পশুর মত স্বভাব হায়!
মানুষ হয়ে মানুষ খেতে
বড্ড ক্ষুধা তাদের পায়।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *