বোধি – সুব্রত মজুমদার

এসেছে এক নবীন সাধু বটতলায়। 

বটের তলে চক্ষু মুদে বসে আছে খুব আমোদে, 

কে টলায় ? 

ন্যাংটা শিশু ধুলোমাখা কুড়িয়ে নিয়ে বকের পাখা 

আপনমনে খেলছে সে । 

 মা ব্যস্ত ঘরের কাজে দিদি ঘাটে বাসন মাজে, 

কেউ নেই আজ তার পাশে। 

দেখছে সাধু যোগাসনে মহাবোধি মহাজ্ঞানে 

চিত্ত স্থির নির্বিকার। 

নির্বিকল্প যোগে রত, নবীন যোগীর ব্রত 

পরাভূত যত আকাঙ্খার।

সহসা কাঁপিল ভ্রূ ঝড়েতে রসাল তরু

যেমন সে কাঁপে, 

চোখ খুলে সাধু ধায় উন্মত্ত ভৈরব প্রায় 

পদভরে ভূমি তার কাঁপে। 

শিশু পাশে কালসর্প দংশিতে ভীষণ ব্যগ্র

শিশু নাহি বোঝে, 

সহসা সে ক্ষৌমবাস হয়ে ভুজঙ্গের ত্রাস 

এল দোহা মাঝে। 

শিশুর করিয়া বুকে ভুজঙ্গের কালরুপে

দাঁড়ালেন আসি।

বুকে করে নিয়ে তারে দাঁড়ালেন নতিদূরে

মুখে মৃদু হাসি। 

শিশুর হাসির সাথে সাধুর হরষ মাতে

 যেন রে আজ্ঞায়

যোগীর আত্মমন সহসা হয় মিলন

অচ্যুত প্রজ্ঞায়।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *