বছর কুড়ি পর – বিজন মণ্ডল

বছর কুড়ি পরে

আমরা যখন অনেকখানি বদলে যাব,

বদলে যাবে জীবনের মোড়ক-

ব্যস্ত রাস্তায় প্যাচপ্যাচে বৃষ্টি, বিচ্ছিরি জ্যাম

আর নাগরিক তিক্ততার ভিড়ে, 

হুট করেই চোখাচোখি হয়ে গেলে, 

ওই পাগল করা হাসিটা, একটুখানি হেসো?

#

হয়তো অতদিনে

পথ বদলে গেছে, বদলে গেছে জীবন,

অন্য কারুর সিঁথান তোমার বুক,

সাংসারিক রুটিনে আমিও হয়তো বেশ থাকি!

তবুও 

কিছু অনুভূতি, কিছু তৃষ্ণা; কখনোই কি বদলায়?

কখনোই কি মুছে যায়, ছুঁয়েও ছুঁতে না পারা কিছু বৃষ্টির দাগ?

#

বছর কুড়ি পরে

আবার কোনো শ্রাবনে 

আমরা মুখোমুখি দাঁড়ালে 

শুধু এমন করে, চোখে চোখ রেখে তাকিও না শতরূপ!

মেঘলা চোখে জিজ্ঞাসার পশরা সাজিয়ে

জানতে এসো না- 

যে দেয়াল আমাদের আলাদা করে রাখে তার নাম।

#

হয়তো অতদিনে

তুমিও পেরিয়ে যাবে স্মৃতির আঙিনা,

অথবা খুব করে পুষে রাখবে অব্যক্ত অভিমান,

পুষে রাখবে, বুকের ভেতর আমি নামের এক সুপ্ত আগ্নেয়গিরি ।

তবুও 

সময়ের মতো অনিবার্যতায়, 

আজ পেরিয়ে যাও আমিত্বের সবটুকু পথ।

#

বছর কুড়ি পরে

তুমি যখন অনেকখানি বদলে যাবে,

বদলে যাবে জীবনের রঙ-

ঘুমভাঙা কোন মাঝরাত্তিরে,

হঠাৎ আমায় মনে পড়লে,

হঠাৎ কোন তৃষ্ণা পোড়ালে, কেঁদো না শতরূপ! 

#

জেনে রাখো-

জনম জনম ধরে

আমরা আমাদের হই না বলেই,

যে তৃষ্ণা, যে অনন্ত অপেক্ষা 

আমাদের বাঁচিয়ে রাখে সৃষ্টির আয়ুষ্কাল অবধি, 

তার নাম দূরত্ব , তার নাম ভালোবাসা!

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *