পাপ : সুব্রত মজুমদার

সেই সে আদিম কালে বিধাতার সংকট তখন

ধরার জঠরে জন্মনিল অনাবিল পাপ।

স্রষ্টার কূটিল ইচ্ছা মৃগীর তাড়না চেতনার অবনত শির

 ভাবনায় নেই মনস্তাপ;

সেইদিন বিধাতার ভুলে এলে তুমি সর্বগ্রাসী নর

ফল ফুল স্নিগ্ধবারিধারা তোমায় আশীষ দিল বিধি।

তুমি প্রবঞ্চক বনস্থলি কেটে বানালে প্রাসাদ অট্টালিকা,

চুরি করে জগতের নিধি। 

তুমি বিশ্বত্রাস, পাষণ্ড প্রবল, 

তোমার নিঃশ্বাসে ডরে ভীষণ ভুজগ। 

তোমার চোখের দৃষ্টি ময়ালের চক্ষুকে কাঁপায়,

তোমার মনের গ্লানি বিষাক্ত পন্নগ।

গর্ভের সন্তানও ভীত তোমার লালসায়, 

তোমার চিন্তা তোমার কলুষে।

নিরীহের আর্তনাদে জাগে না তোমার অন্তর, 

বয়নাকো স্নেহধারা মমতায় মিশে।

হে নিষ্ঠুর, তোমার অভিষেক জগতের প্রলয়ের তরে, 

মঙ্গলঘট মিথ্যা প্রবঞ্চনা,

মানবতা মিথ্যা এক শব্দের নিবন্ধ

মূল্য দিয়ে অমূল্যকে কেনা।

শিশু তাই মাতৃগর্ভে বসে মৃত্যুর প্রহর গুনে যায়, 

চুপে চুপে বলে বিধাতাকে,

যে ঘাতকে এনেছ ধরায় তার যেন আগত সন্তান

সকুশলে থাকে। 

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *