তোমার বনলতা সেন // প্রগতি

তোমার বনলতা সেন // প্রগতি

 হাজার বছর ধরে তুমিও তো পথ হেঁটেছ অনেক,

সিংহল সমুদ্র , অন্ধকারে মালয় সাগর ঘুরেছো তুমিও,

অশোকের ধূসর জগত, আন্ধকারে বিদর্ভ নগর তুমিও দেখেছো,

তোমার‌ও এই ক্লান্ত প্রাণে, আমিও নাহয় শান্তি হলাম দু’দন্ডের, হলাম নাহয় তোমার বনলতা সেন।

.

.

চুল জুড়ে নাইবা থাকলো বিদিশার নিশা,

মুখে নেই শ্রাবস্তির কারুকার্য,

তুমিতো তেমন নাবিক, হাল ভেঙে হারিয়েছ দিশা,

আমিও থাকবো দারুচিনির দ্বীপে,

জিজ্ঞেস করবো তোমায় ডেকে ‘ এতদিন কোথায় ছিলে’- তাই হলাম নাহয় তোমার বনলতা সেন

.

.

শিশিরের শব্দের মতন সন্ধ্যা যদি নামে আবার দিনের শেষে,

ডানাতে রোদের গন্ধ মুছে ফেলতে চিল যদি হয় ব্যস্ত,

পৃথিবীর সব রং নিভে আসে, গল্পের তরে জোনাকী যদি আবার করে ঝিলমিল,

.

.

সব পাখি ফিরে যদি আসে ঘরে, সব নদী যদি – ফুরায় এই জীবনের লেনদেন,

তখন থাকবো আমি, মুখোমুখি বসবো তোমার,

হলাম নাহয় তোমার বনলতা সেন।

.

.

.

.

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *