অভিমান // শর্মিষ্ঠা গুহ রায়(মজুমদার)

https://www.sahityakaal.com

আজকে পিহুর খুব রাগ হয়েছে।স্কুল থেকে এসেই সব বন্ধু দের সাথে দল বেঁধে খেলছিল।আর ঐযে ঝিমলি-খুব পচা র্মাকা একটা মেয়ে,সবসময় চিটিং করে ওকে হারিয়ে দেয়।

.

.

কিন্তু সেটা বড় কথা নয়,ওতো ঐ রকমই।বড় কথা হল,পিহুর বেস্ট ফ্রেন্ড নিমকি তাতে এতটুকু বিচলিত হলনা।দুঃখে এমনিতেই ওর প্রাণ ফেটে যাচ্ছিল,এক দৌড়ে নিজের বাড়ির ছাদে গিয়ে দাঁড়াল।চোখটা ছল্ ছল্ করে উঠল।আর কখ্খনো ও কথা বলবেনা নিমকির সাথে।

.

.

ও আজকে ঝিমলির বন্ধু হয়ে গেছে।ও দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে ছাদের ওপর ঝুঁকে থাকা অর্জুন গাছের ডালগুলো থেকে পাতাগুলো ছিঁড়তে শুরু করল।পাতাগুলোকে পাকিয়ে পাকিয়ে বিচিত্র জিনিস বানাতে লাগল।কিন্তু সময় যেন আর কাটেনা।চোখের জল ভিজিয়ে দেয় পিহুর জামা।কখ্খনো মাফ্ করবেনা ও নিমকিকে।

.

.

হঠাৎ কাঁধে এ কার হাত?মিষ্টি গলায় নিমকির আওয়াজ-‘কিরে চলে এলি যে?আমিও চলে এলাম।খুব বাজে ঝিমলিটা,চল্ আমরা এখানেই খেলি।’

.

.

মুহূর্তে সব রাগ গলে জল হয়ে গেল।এরপর কি হল?কি আবার হবে?দুবন্ধু মিলে ছাদেই খেলতে শুরু করল।পড়ন্ত বিকেলের কমলা আকাশটা তখন কিন্তু খুব সুন্দর দেখাচ্ছিল।

.

.

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *